[Short QNA] ইউরোপের দ্বার বলা হয় কাকে

5/5 - (2 votes)

আরও পড়ুন:—

Question:ইউরোপের দ্বার বলা হয় কাকে?
(A)বন
(B)রোম
(C)লন্ডন
(D)ভিয়েনা

উত্তরঃ (D) ভিয়েনা


প্রশ্নঃ— ইউরোপের দ্বার বলা হয় কাকে?

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনাকে প্রায়ই “ইউরোপের প্রবেশদ্বার” বলা হয়। এই ডাকনামটি বহু শতাব্দী ধরে বাণিজ্য, সংস্কৃতি এবং রাজনীতির কেন্দ্র হিসেবে ভিয়েনার ঐতিহাসিক ভূমিকার পাশাপাশি ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শহর হিসেবে এর বর্তমান অবস্থানকে প্রতিফলিত করে।

ভিয়েনা বহুদিন ধরেই বাণিজ্য ও ভ্রমণের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ সংযোগস্থল, যা বেশ কয়েকটি প্রধান ইউরোপীয় রুটের সংযোগস্থলে অবস্থিত। ইতিহাস জুড়ে, শহরটি রাজনৈতিক ক্ষমতার কেন্দ্র এবং হ্যাবসবার্গ সাম্রাজ্যের রাজধানী ছিল, যা মধ্য ইউরোপের বেশিরভাগ নিয়ন্ত্রণ করেছিল। আজ, ভিয়েনা এখনও সংস্কৃতি, রাজনীতি এবং কূটনীতির একটি প্রধান কেন্দ্র, এবং জাতিসংঘ এবং ওপেক সহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার আবাসস্থল।

এছাড়াও শহরটি একটি বড় পরিবহণ কেন্দ্র, একটি বড় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং বেশ কয়েকটি ট্রেন স্টেশন যা এটিকে অন্যান্য ইউরোপীয় শহরের সাথে সংযুক্ত করে, এটি ইউরোপে ভ্রমণকারীদের জন্য একটি আদর্শ সূচনা পয়েন্ট করে তোলে। ভিয়েনা তার সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, স্থাপত্য সৌন্দর্য এবং উচ্চ জীবনযাত্রার জন্যও বিখ্যাত। এই সমস্ত উপাদান ভিয়েনাকে ইউরোপের সবচেয়ে আকর্ষণীয় শহরগুলির মধ্যে একটি করে তোলে, এইভাবে ডাকনাম “Gateway to Europe”।

সুতরাং ইউরোপের দ্বার বলা হয় অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনাকে ৷